এমপি আনার হত্যার মাস্টারমাইন্ড কে এই আক্তারুজ্জামান শাহিন..?

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যার মাস্টারমাইন্ড হিসেবে বারবারই উঠে এসেছে একটি নাম। সেটি হচ্ছে এমপি আনারের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ও ব্যবসায়িক সহযোগী আক্তারুজ্জামান শাহিন। আক্তারুজ্জামান শাহিন কোটচাঁদপুর উপজেলার এলাঙ্গী গ্রামের আসাদুজ্জামানের ছোট ছেলে।
খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, আক্তারুজ্জামান শাহিন ছোটবেলা থেকেই ছিলেন অত্যন্ত মেধাবী একজন ছাত্র। ছাত্র জীবনে কোটচাঁদপুর উচ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং কোটচাঁদপুর কেএমএইচ কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন। পরবর্তী সময়ে চট্টগ্রাম মেরিন একাডেমী থেকে মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে জাহাজে চাকুরী শুরু করেন। জাহাজে চাকুরী করাকালীন সময়ে পেয়ে যান আমেরিকা যাবার লটারির টিকিট। এরপরেই তিনি আমেরিকাতে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। তিনি মাঝে মাঝে বাংলাদেশে আসতেন। ইদানীংকালে তিনি এলাঙ্গীতে তার বাগানবাড়িতে মাঝে মাঝে এসে থাকতেন। তিনি একজন আমেরিকান পাসপোর্টধারী। ভারত, দুবাই, নেপাল, সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়াসহ বিশ্বের অনেকগুলো দেশে ছিলো তার অবাধ যাতায়াত।
আক্তারুজ্জামান শাহিন ব্যক্তিগত জীবনে দুই সন্তানের জনক। প্রথম সন্তান মেয়ে সিমনা জামান(১৮) এবং দ্বিতীয় সন্তান ছেলে সাকিন জামান(১৬)। তার স্ত্রীর নাম কনক। তার স্ত্রীর বাবার বাড়ি ঢাকার বসুন্ধরা এলাকায় তবে পূর্বে তারা মগবাজার এলাকার বাসিন্দা ছিলেন।
আক্তারুজ্জামান শাহিন ৫ ভাই-বোনের মধ্যে শেষের দিক থেকে দ্বিতীয় এবং ভাইদের ভেতরে সবার ছোট। তার বড়ভাই শহিদুজ্জামান সেলিম কোটচাঁদপুর পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং কোটচাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র। তার মেজো ভাই মনিরুজ্জামান মনা বুয়েট থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে আমেরিকার ডেট্রয়েট রাজ্যে বসবাস করেন। তার বড় বোন খুকু থাকেন কানাডাতে এবং ছোট বোন এলিন ঢাকাতে বসবাস করেন।
এলাকাবাসী জানায়, আক্তারুজ্জামান শাহিন মেয়র সেলিমের ছোট ভাই। সে তাদের ভাটার ব্যবসা বন্ধ করে এখানে বিশাল বাগানবাড়ি তৈরি করেছেন। বাগানবাড়িটি সবসময় তালাবদ্ধ থাকে এবং কাউকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না। সেইসাথে বলা হয় এখানে কুকুর রয়েছে। আমরা কুকুরের ভয়ে কোনদিন ওই বাড়িতে প্রবেশের চেষ্টা করিনি। স্থানীয়রা আরো জানান, রাতের বেলা বাগানবাড়িতে মাঝে মাঝে গাড়ি নিয়ে লোকজন আসতো এবং গান শোনা যেত।
সরেজমিনে বাগানবাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, এলাঙ্গী বাজার থেকে ১.৭ কিলোমিটার দূরে নির্জন এলাকায় অবস্থিত বাগানবাড়িটি তালাবদ্ধ এবং পুরো এলাকা বাইরের দিক থেকে সিসিটিভি ক্যামেরা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।
আক্তারুজ্জামান শাহিনের বড়ভাই কোটচাঁদপুর পৌরসভার মেয়র সহিদুজ্জামান সেলিম বলেন, আমার ছোটভাই শাহিনের সাথে বেশ কয়েক বছর ধরে এমপি আনারের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিলো। কিন্তু তাঁদের মধ্যে কোন ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিলো কিনা তা আমার জানা নেই। শাহিন এমপি আনার কে হত্যা করবে এটি আমি এখনো বিশ্বাস করতে পারছিনা। তবে যেহেতু প্রাথমিক তদন্তে তার নাম উঠে এসেছে সেহেতু তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কিছুই বলা যাচ্ছে না। তদন্তে যদি আমার ছোটভাই শাহিন দোষী হয়ে থাকে তাহলে রাষ্ট্রীয় আইনে যা শাস্তির বিধান রয়েছে তা মেনে নেব।
উল্লেখ্য যে, গত ১২মে চিকিৎসার জন্য ভারতে গমন করেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার। ১৩মে তিনি কলকাতার নিউটাউন এলাকা থেকে নিখোঁজ হন। নিখোঁজের পর তার কলকাতার ঘনিষ্ঠ বন্ধু গোপাল একটি মিসিং ডাইরি করেন। এ ঘটনার পর গত ২২মে জানা যায় সাংসদ আনোয়ারুল আজিম আনার নিহত হয়েছেন। এঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনজনকে আটক করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। আটকৃতদের স্বীকারোক্তি থেকে উঠে এসেছে আক্তারুজ্জামান শাহিনের নাম।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *