করোনায় বিশ্বজুড়ে ১৭ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু, দেশে ১৩১

করোনা মহামারির শুরু থেকে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন চিকিৎসক, নার্স, তথা স্বাস্থ্যকর্মীরা। সম্মুখসারির যোদ্ধা হিসেবে সেবা দিতে গিয়ে তাঁদের অনেকেই আক্রান্ত হয়েছেন, মারাও গেছেন।

আজ শুক্রবার আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহামারি শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনায় অন্তত ১৭ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশে করোনায় মারা গেছেন ১৩১ স্বাস্থ্যকর্মী, যা দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

প্রতিবেদনটি তৈরিতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সঙ্গে আরও যুক্ত ছিল পাবলিক সার্ভিসেস ইন্টারন্যাশনাল (পিএসআই) ও ইউএনআই গ্লোবাল ইউনিয়ন। প্রতিবেদেন বলা হয়েছে, মহামারি শুরুর পর থেকে বিশ্বজুড়ে প্রতি ৩০ মিনিটে একজন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় মারা গেছেন। মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজারে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের অর্থনৈতিক ও সামাজিক ন্যায্যতাবিষয়ক শাখার প্রধান স্টিভ ককবার্ন বলেন, ‘এটি বড় একটি ট্র্যাজেডি। সম্মুখসারির যোদ্ধা হিসেবে মহামারিতে আমরা অন্তত ১৭ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীকে হারিয়েছি। তবে এ সংখ্যা পূর্ণাঙ্গ নয়। কেননা, অনেক দেশের তথ্য এ প্রতিবেদনে যুক্ত করা সম্ভব হয়নি।’

প্রতিবেদনটিতে ৭০টির বেশি দেশের তথ্য যুক্ত করা হয়েছে। মূলত সরকার, মেডিকেল ইউনিয়ন, গণমাধ্যম এবং নাগরিক সমাজের প্রতিষ্ঠানগুলোর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, গত বছরের শুরু থেকে মহামারিকালে যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় ৩ হাজার ৫০৭ জন স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। মেক্সিকো ও কানাডায় মারা গেছেন যথাক্রমে ৩ হাজার ৩৭১ ও ৪৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী। রাশিয়ায় মারা গেছেন ১ হাজার ১৩১ জন স্বাস্থ্যকর্মী। ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনায় এ সংখ্যা যথাক্রমে ১ হাজার ১৪৩ ও ৪৪৬।

ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে যুক্তরাজ্যে সবচেয়ে বেশি ৯৩১ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় মারা গেছেন। ইতালিতে ৪০৭ জন, স্পেনে ৯২, ফ্রান্সে ৬৩ ও পর্তুগালে ১৯ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় মারা গেছেন। অন্যদিকে করোনার সূতিকাগার চীনে ২৯ জন স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে।

বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়া

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে ভারতে সবচেয়ে বেশি ৮৯৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় মারা গেছেন। পাকিস্তানে এ সংখ্যা ১০০ জন। আফগানিস্তানে করোনায় ৪ জন স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যুর কথা জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, গত বছরের মার্চে প্রথম সংক্রমণ শনাক্তের পর থেকে গত ২৪ ফ্রেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনায় ১৩১ জন স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) বরাতে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান—দক্ষিণ এশিয়ার এ চার দেশের তথ্য রয়েছে। সেই হিসাবে, করোনা মহামারিতে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে ভারতের পর বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে।

Group of doctors and nurses standing together. Medical people. Hospital staff. Flat style vector illustration.
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Next Post

অক্ষমতা ডিঙ্গিয়ে সফল নারী তিস্তা পাড়ের প্রতিবন্ধী ফরিদার!

মঙ্গল মার্চ ৯ , ২০২১
জন্ম থেকেই শারীরিক প্রতিবন্ধী (বামন) ফরিদা খাতুন (৩৫)। সমাজে বোঝা হয়ে না থেকে বিনা পুঁজিতে শুরু করেন জালের ব্যবসা। শারীরিক অক্ষমতা তাকে দমাতে পারেনি। এসএসসি পরীক্ষা দিয়েই অর্থে অভাবে আর পড়াশুনা হয়নি। এদিকে পরিবারে অভাব-অনটন ছিল নিত্যসঙ্গী। দিনমজুর বাবার প্রতিবন্ধী ৫ সন্তানদের মুখে অন্ন জোগাড় করাই ছিল চরম কষ্টের। এমনই […]