করোনা-সতর্কীকরণ অ্যাপ : ভাইরাস মোকাবেলায় জার্মানির একটি বড়ো পদক্ষেপ

জার্মান সরকার করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মঙ্গলবার নতুন একটি  করোনাভাইরাস ট্রেসিং অ্যাপ উন্মোচন করেছে। মহামারির বিরুদ্ধে এটি একটি বড়ো পদক্ষেপ হবে  বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

সরকার অনেকটা আশাবাদী যে, যদি নাগরিকেরা এই ফ্রি অ্যাপটি ব্যবহার করে, তবে তারা জনবহুল স্থানগুলোতে করোনাভাইরাস সংক্রমিত ব্যক্তি  এবং সংক্রমিত এলাকাগুলোও সহজে  চিহ্নিত  করতে পারবে এবং সেই স্থানগুলো এড়িয়ে চলতে পারবে ।

বার্লিনে উদ্বোধনকালে চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের মুখপাত্র  হেল্জ ব্রান বলেছেন, এটি ডাউনলোড এবং ব্যবহার আমাদের প্রত্যেকের জন্য একটি ছোটো পদক্ষেপ, তবে মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষেত্রে একটি বড়ো পদক্ষেপ।

যদি কোনো করোনা-আক্রান্ত ব্যক্তি তার অ্যাপ-এর মাধ্যমে আক্রান্তের বার্তা ছড়িয়ে দেন, তবে অন্য ব্যবহারকারীর নিকট দ্রুত একটি খুদে বার্তা চলে যাবে।  আক্রান্ত ব্যক্তি সহজেই বুঝতে পারবে সে কোন স্থানে এবং কোন ব্যক্তির সাথে সময় কাটিয়েছে ।

জার্মানিতে লকডাউন  কিছুটা শিথিল হওয়াতে ট্রেন এবং বাসে যাত্রীদের চলাচলের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। বিশেষ করে প্রধান ট্রেন স্টেশনগুলোতে অ্যাপটি ভালো কাজে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

জার্মানির শীর্ষস্থানীয় জনস্বাস্থ্য পরামর্শদাতা সংস্থা রবার্ট কোচ ইনস্টিটিউট (আরকেআই)-র লোথার উইলার বলেছেন, অ্যাপ্লিকেশনটি করোনা -সংক্রমণের চক্র ভেঙে ফেলতে খুব কার্যকরী ভূমিকা রাখবে।

আরও পড়ুন: নিউজিল্যান্ডে আবারও করোনার আঘাত!

ডয়চে টেলিকম এবং সফটওয়্যার সংস্থা এসএপি অ্যাপ্লিকেশনটির জন্য ২০ মিলিয়ন ইউরো ব্যয় করেছে।

তবে অ্যাপটি স্মার্টফোনে ব্যবহারের ক্ষেত্রে কিছু শর্ত রয়েছে। যেমন: অ্যান্ড্রয়েড-৬  বা আইফোন, আইওএস ১৩.৫ ইনস্টল করা হয়েছে এমন স্মার্টফোনেই এটি ব্যবহার করা যাবে।

শ্রাবণ রহমান; হামবুর্গ, জার্মানি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

বৃষ্টির পানিতে ডুবে আছে খুলনা

বৃহঃ জুন ১৮ , ২০২০
টানা বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে খুলনার বহু এলাকায়। চলমান বর্ষণে প্রতিদিনই পানিতে ডুবে যাচ্ছে নগরীর অধিকাংশ ব্যস্ততম সড়ক ও নিম্নাঞ্চল। বুধবার (১৭ জুন) ও বৃহস্পতিবারের (১৮ জুন) প্রচণ্ড বৃষ্টিপাতে নগরীর অনেক এলাকা পানির নিচে তলিয়ে যায়। জলজটের কারণে চরম দুর্ভোগের মধ্যে আছে নগরীর হাজার হাজার মানুষ। নগরী ছাড়াও প্রবল বৃষ্টিতে […]