লালমনি এক্সপ্রেস ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করলো ৬৬ দিন পর

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সারা দেশে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল প্রায় দু মাস বন্ধ ছিল। অবশেষে সরকারের অনুমোদনের পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেনের এক সিট ফাঁকা রেখে অন্য সিটে যাত্রী নিয়ে দীর্ঘ ৬৬ দিন পর যাত্রা শুরু করেছে লালমনি এক্সপ্রেস। এ সময় যাত্রীদের জন্য ট্রেনে পর্যাপ্ত সাবান, পানি, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।
রোববার (৩১ মে) নির্ধারিত সময় সকাল ১০টা ২০ মিনিটে লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশন থেকে ঢাকা কমলাপুরের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে ট্রেনটি। এর আগে ট্রেনটি শতভাগ হকার ও ভিক্ষুকমুক্ত করা হয়।
জানা গেছে, বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের (কোভিড ১৯) সংক্রমণ রোধে বাংলাদেশে অঘোষিত লকডাউনে গণপরিবহন বন্ধ করে সরকার। এতে রেলওয়ের লালমনিরহাট বিভাগীয় রুটের ১৪ জোড়া ট্রেন চলাচল বন্ধ করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। অবশেষে দীর্ঘ দুই মাস পরে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রথম পর্যায়ে কয়েকটি আন্তনগর ট্রেন চলাচলের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। সেই সিদ্ধান্ত মোতাবেক স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাত্রীদের শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে রোববার (৩১ মে) নির্ধারিত সময়ে লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু করে লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেন।
যাত্রীদের সুরক্ষার জন্য অনলাইনের মাধ্যমে টিকিট বিক্রি করা হয়েছে। সেখানেও নির্ধারণ করা হয়েছে শারীরিক দূরত্ব । চাহিদা থাকলেও স্বাস্থ্যবিধির কারণে ট্রেনটি অর্ধেক যাত্রী নিয়ে যাত্রা শুরু করে। এছাড়াও রেলওয়ে জংশন স্টেশনের প্লাটফর্ম গেটে প্রবেশের আগে ডিজিটাল থার্মোমিটারে তাপমাত্রা পরিমাপ ও শতভাগ মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। যাত্রীদের জন্য ট্রেনে পর্যাপ্ত সাবান, পানি ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখা হয়েছে।
দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পরে পুনরায় যাত্রা শুরু করা লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনের গার্ড আল আমিনের পরিচালনায় কমলাপুর স্টেশনের উদ্দেশ্যে লালমনিরহাট ত্যাগ করে। চালক শফিউল আলম ও সহকারী চালক আবু বক্কর সিদ্দিক ট্রেন চালানোর দায়িত্ব রয়েছেন। ট্রেনে প্রবেশ ও বাহির পথ পৃথক করে সীমিত পরিসরে হলেও সকল স্টেশনে যাত্রা বিরতি দিবে লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেন।
যাত্রী সারেরা বেগম বলেন, নির্ধারিত মূল্যে অনলাইনে টিকিট কিনেছি। পাশের সিট ফাঁকা হলেও টিকিট মূল্য বাড়ানো হয়নি। সব থেকে মজার বিষয় ট্রেনটি শতভাগ হকার ও ভিক্ষুকমুক্ত। এমন পরিবেশ আগামী দিনেও বজায় রাখলে করোনা সংক্রমণ রোধে কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলেও দাবি করেন তিনি।
বাংলাদেশ রেলওয়ে লালমনিরহাট বিভাগীয় ব্যবস্থাপক তাপস কুমার দাস বলেন, সরকারি নির্দেশনা মেনে অনলাইনে টিকিট বিক্রি করে লালমনি এক্সপ্রেস যাত্রা শুরু করেছে। একই সাথে যাত্রীদের জন্য ট্রেনে পর্যাপ্ত পরিমাণে সাবান, পানি ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখা হয়েছে। প্রতিটি স্টেশনে যাত্রীদের তাপমাত্রা ও মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। পৃথক করা হয়েছে ট্রেনে প্রবেশ ও বাহির পথ। পাশের সিট অবিক্রিত রেখে শারীরিক দূরত্ব রাখা হয়েছে। সকল নির্দেশনা মেনেই যাত্রা শুরু হয়েছে ট্রেনটি।
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সমসাময়িক